অজানা মহাকাশ, ধুমকেতু …

11692580_1497288967228355_7326663341618949159_nধুমকেতু  কী?
ধুমকেতু মূলত ধুলিময় বরফগোলক যারা সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। এরা বরফ, পানি, কার্বন ডাইঅক্সাইড, এমনিয়া, মিথেন এবং ধুলিকণার সংমিশ্রণে তৈরী। যখন আমাদের সূর্য সৃষ্টি হয়েছিল তখন থেকেই এই পদার্থগুলো তৈরী হয়েছিল। ধুমকেতুগুলোর কেন্দ্র (নিউক্লিয়াস) বরফপূর্ণ। এদের কেন্দ্র বিভিন্ন প্রকার গ্যাস এবং ধুলিকণার মেঘ দিয়ে বেষ্টিত। এগুলোকে একত্রে বলা হয় Coma । ধুমকেতুর কেন্দ্র সূর্যের তাপে বাষ্পীভূত হতে হতে Coma’র সৃষ্টি করে।
ধুমকেতুগুলো যখন সূর্যের কাছাকাছি ভ্রমণ করে তখন সেগুলো দু’ভাবে বিকাশিত হয়ঃ গ্যাস নিয়ে সোজা লেজ এবং ধুলিকণা নিয়ে বক্র লেজ দেখা যায়। গ্যাসের লেজগুলো Solar wind এর জন্য গঠিত হয়। Coma’র ধুলিকণা গুলো ম্যাগনেটিক ফিল্ডের জন্য নিজেদের মধ্যে কোনো পরিবর্তন করেনা কিন্তু সূর্যের তাপে এগুলো বাষ্পীভূত হয়ে যায়, যার ফলে ধুমকেতু গুলোর বাঁকা ধুলিকণাময় লেজ তৈরী হয়।

উল্কা বৃষ্টি কী?
যখন কোণো ধুমকেতু সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে তখন এর কিছু অংশ সূর্যের তাপে বাষ্পীভূত হয়ে যায়। ধুমকেতুগুলো সূর্যকে প্রদক্ষিণ করতে করতে এর অনেক ক্ষুদ্র অংশ এর থেকে ছিটকে যায়। উল্কা বৃষ্টি তখনই ঘটে যখন আমাদের পৃথিবী ঐ ধুমকেতুর আংশিক পথ দিয়ে সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। যখন এটা ঘটে, ধুমকেতুর ধংসটুকরো (বালুকণা থেকে বেশি বড় নয়) রাতের আকাশে আলোর ঝলক তৈরী করে এগুলোকে আমরা পৃথিবী থেকে বায়ুমন্ডলের জন্য দেখতে পাই যেন এরা জ্বলছে। ধুমকেতুর ধ্বংসটুকরো যেগুলো পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে প্রবেশ করে সেগুলোকে বলা হয়ে থাকে উল্কা। যেকোনো সময়ই উল্কা দেখা যায়। উল্কাগুলো আমাদের কাছে Shooting Star নামে বেশি পরিচিত। যাই হোক উল্কা বৃষ্টির সময় ১ঘন্টার মধ্যে একশ’রও বেশি উল্কা দেখা যায়।

ধুমকেতুর বিস্তৃতি কতটুকু?
বেশিরভাগ ধুমকেতুর নিউক্লিয়াস (ধুমকেতুর কেন্দ্র) ৬মাইল বা ১০ কি.মি. এর কম হয়ে থাকে। কোনো ধুমকেতুর বিস্তৃতি নির্ভর করে সেটি সূর্য থেকে কত দূরে অবস্থান করছে। যখন কোনো ধুমকেতু সূর্যের কাছাকাছি যায় তখন তার নিউক্লিয়াসে অবস্থিত বরফ বাষ্পীভূত হয়ে শুরু করে। আর নিউক্লিয়াসের বরফ বাষ্পীভূত হওয়ার কারণে Coma’র বিস্তৃতি বেড়ে গিয়ে হয়ে যায় ৫০,০০০ মাইল বা প্রায় ৮০,০০০কি.মি. এর ফলে ধুমকেতুর লেজ গুলোর বিস্তৃতি বেড়ে গিয়ে প্রায় ৬০০,০০০ মাইল বা প্রায় ১মিলিয়ন কি.মি. হয়ে যেতে পারে।

কোনো ধুমকেতু কি সত্যিই বৃহস্পতি গ্রহে পতিত হয়েছিল?
হ্যাঁ, জুলাইয়ের ১৬-২২ তারিখে ১৯৯৪তে, Comet Shoemaker-Levy 9 এর কিছু অংশ বৃহস্পতি গ্রহের সঙ্গে সংঘর্ষিত হয়েছিল। এখন পর্যন্ত পর্যবেক্ষণকৃত আমাদের সোলার সিস্টেমের দু’টি বস্তুর সংঘর্ষ একমাত্র এটিই। বৃহস্পতি গ্রহের প্রবল মধ্যাকর্ষনের জন্য ধুমকেতুটি বৃহস্পতিতে পতিত হয়েছিল। Comet Shoemaker-Levy 9 ধুমকেতুটির ২০টির বেশি টুকরো বৃহস্পতি গ্রহের দক্ষিণ গোলার্ধে ঘন্টায় প্রায় ১৩০,০০০মাইল বা ২১০,০০০কি.মি বেগে পতিত হয়েছিল।

হ্যালির ধুমকেতু কখন দেখা যাবে?
হ্যালির ধুমকেতু রাতের আকাশে ২০৬২ সালে আবার দেখা যাবে। কেননা এটি সূর্যকে ৭৫-৭৬ বছরে একবার প্রদক্ষিণ করে। হ্যালির ধুমকেতুর সূর্যকে প্রদক্ষিণের সময়কাল বিজ্ঞানী এডমন্ড হ্যালি মেপেছিলেন ১৬৮২ সালে। এরপর ১৭৫৮, ১৮৩৫, ১৯১০ এবং ১৯৮৬ সালে দেখা গিয়েছিল।

কার্টেসিঃ রহস্যময় বিজ্ঞান জগত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


*